1. tasermahmud@gmail.com : admi2017 :
  2. akazadjm@gmail.com : Taser Khan : Taser Khan
রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪, ০১:৩০ পূর্বাহ্ন

অপ্রতিরোধ্য মেসির ৪ গোল

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২০

লিওনেল মেসি শেষ গোলটি করেছিলেন জানুয়ারির ১৯ তারিখে এর পর ৩৭৫ মিনিট গোলবিহীন থেকে ঘরের মাঠে এইবারের বিপক্ষে খেলতে নেমেছিলেন। ১৪ মিনিটে গোলখরা কাটালেন। এর পর ২৬ মিনিটের ব্যবধানে আরো দুই গোল দিয়ে করলেন হ্যাটট্রিক। ম্যাচ শেষের ৩ মিনিট আগে গোল সংখ্যা নিয়ে গেলেন চারে। এর সঙ্গে আর্থার মেলো যোগ করলেন আরেকটি। সব মিলিয়ে এইবারকে ৫-০ গোলে বার্সা উড়িয়ে দিল, আর মেসি একাই করলেন তাতে ৪ গোল। আর রাতে রিয়াল মাদ্রিদ লেভান্তের কাছে হারায় এই জয়ে লা লিগার শীর্ষস্থানে উঠে গেছে বার্সেলোনা।

হ্যাটট্রিকের সঙ্গে আরেকটি রেকর্ডও হয়েছে মেসির। ৬৯৬ গোল আর ৩০৬ অ্যাসিস্ট মিলিয়ে সংখ্যাটা হাজার ছাড়িয়েছে আর্জেন্টাইন ফুটবল জাদুকরের। প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচে গোল করা ও করানো মিলিয়ে এক হাজার পার করা প্রথম খেলোয়াড়ও হয়ে গেছেন মেসি।

ন্যু ক্যাম্পে মেসি শো শুরু হয়েছিল দুর্দান্ত এক মেসিময় মুহুর্তে। নাটমেগ করে এক ডিফেন্ডারকে ছিটকে, আরেকজনকে টপকে এগিয়ে আসা গোলরক্ষকের ওপর চিপ করে নিখুঁত গোলে খরা কাটিয়েছিলেন মেসি। এই পুরো ঘটনায় সেকেন্ডের ভগ্নাংশের সমান মুহুর্তে বলের জাদুকরী টাচগুলো ছিল গোলের চেয়েও সুন্দর। আপনি যতই পড়ুন না কেন, এই গোল আপনাকে দেখতেই হবে!

কোনো ম্যাচে দ্রুততম সময়ে মেসির হ্যাটট্রিকের রেকর্ডটি ২০১১ সালে। মায়োর্কার বিপক্ষে আধ ঘন্টার ভেতর হ্যাটট্রিক করেছিলেন সেবার। ৩৭ আর ৪০ মিনিটে গোল করার পর দ্রুত সময়ের ভেতর এবারের হ্যাটট্রিকটি রয়েছে ঠিক তার পরই। এই দুই গোলের প্রথমটি মেসি করেছেন আর্তুরো ভিদালের পাস থেকে বক্সের ভেতর ঢুকে গিয়ে। বক্সের ভেতর বাম পাশ থেকে বাম পায়ের শটে কঠিন অ্যাঙ্গেলকে তখন বশ মানিয়েছেন মেসি। পরের গোলটিতে জায়গামতো ছিলেন তিনি। অ্যান্টোয়ান গ্রিযমানের শট এইবার গোলরক্ষক ঠেকিয়ে দেওয়ার পর মেসির সামনে গিয়েই পড়েছিল। সে বল এক টোকায় ঠেলে দিয়ে হ্যাটট্রিক পূরণ করেন মেসির।

জয় নিশ্চিত হয়ে যাওয়ার পর দ্বিতীয়ার্ধে লম্বা একটা সময় বার্সা গোল করতে পারেনি। তবে ৭০ মিনিটে গ্রিযমানের বদলি হয়ে নামা নতুন স্ট্রাইকার মার্টিন ব্রাথওয়েট বাকি আলো কেড়ে নিয়েছেন তিনি। শেষ দুই গোলেই তার অবদান। ৮৭ মিনিটে বাম প্রান্ত থেকে ক্রস করেছিলেন গোলের সামনে, যার শেষ মাথায় ছিলেন মেসি। ২ মিনিট পর সরাসরি গোলে শট করেও গোলরক্ষকের কাছে হার মানেন ব্রাথওয়েট। কিন্তু সামনে ছিলেন আর্থার। তিনি বাকি কাজ সেরেছেন। মেসিময় দিনে ব্রাথওয়েটের অভিষেকটাও তাই হয়েছে দারুণ।

ব্রাথওয়েটের পাসে গোল করার পর উদযাপনের সময় তাকে জড়িয়ে ধরেছিলেন মেসি। ম্যাচ শেষে ব্রাথওয়েট বলেছেন এই জামা আর ধুয়ে দেবেন না তিনি! কারণ এতে নাকি মেসির ছোঁয়া আছেন। ব্রাথওয়েট অবশ্য এখন চাইলে মেসির কাছ থেকে একটি জার্সিও নিয়ে রাখতে পারেন। সপ্তাহখানেক আগেও তো এই ক্লাবে খেলার কথা ছিল না তার!

বার্সেলোনার অবশ্য এইবারকেও বড় ব্যবধানে হারিয়েও তৃপ্তির সুযোগ নেই। চ্যাম্পিয়নস লিগে দ্বিতীয় রাউন্ডের অভিযান আরেকবার শুরু হচ্ছে মেসিদের। নাপোলির বিপক্ষে তারা খেলবে ৩ দিন পরই।
সূত্র : প্যাভিলিয়ন

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved © 2019-2023 usbangladesh24.com