1. tasermahmud@gmail.com : admi2017 :
  2. akazadjm@gmail.com : Taser Khan : Taser Khan
বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ০৩:৩৪ অপরাহ্ন

আল্লাহর ৯৯ নাম সম্বলিত ২৮ ফুট দৈর্ঘ্যের কলম তৈরি করলেন হায়দার

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ৪ মার্চ, ২০২০

মহান আল্লাহর ৯৯টি নাম সম্বলিত একটি কলম তেরি করেছেন আব্দুল্লাহ আল হায়দার নামে এক যুবক। তিনি ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নবীনগর উপজেলার বড়াইল ইউনিয়নের জালশুকা গ্রামের মৃত শরীফ আব্দুল্লাহ হারুনের ছেলে। গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে বাংলাদেশ ও নিজের নাম অন্তর্ভুক্ত করতে ২৮ ফুট দৈর্ঘ্য ও ১৮ ইঞ্চি প্রস্থের ৭৮ কেজি ওজনের একটি বল পয়েন্ট কলম তৈরি করেছেন তিনি। কলমটিতে আরবি হরফে খোদাই করে লেখা হয়েছে আল্লাহর পবিত্র ৯৯টি নাম ও পবিত্র কোরআন শরীফের ১১৪টি সুরার নাম। সেগুন কাঠ দিয়ে বানানো কলমটিকে বিশ্বের সর্ববৃহৎ কলমের স্বীকৃতি দিতে ইতোমধ্যে গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে আবেদন করেছেন হায়দার। স্বীকৃতি পেতে গিনেস বুক কর্তৃপক্ষের দেয়া ৬১টি শর্তই পূরণ করতে পেরেছেন তিনি।

জানা যায়, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নবীনগর উপজেলার বড়াইল ইউনিয়নের জালশুকা গ্রামের মৃত শরীফ আব্দুল্লাহ হারুনের ছেলে আব্দুল্লাহ আল হায়দার পাঁচ ভাইবোনের মধ্যে সবার ছোট। হিসাব বিজ্ঞানে স্নাতক সম্পন্ন করেছেন তিনি। সম্প্রতি বাড়ির ছাদের ওপর কলমটি তৈরি করেছেন তিনি। কলমটিতে আরবি হরফে খোদাই করে লেখা হয়েছে আল্লাহর পবিত্র ৯৯টি নাম ও পবিত্র কোরআন শরীফের ১১৪টি সুরার নাম। হায়দার নিজেই আরবি হরফে নামগুলো খোদাই করেছেন। কলমের নিপ তৈরিতে তাকে সহযোগিতা করেছেন জাহিদ হোসেন। আরবি হরফে লেখাগুলো যাচাইয়ে সহযোগিতা করেছেন মাওলানা নজরুল ইসলাম বিন সাইদ এবং অধ্যক্ষ মুহাম্মদ আব্দুল্লাহ।

আব্দুল্লাহ আল হায়দার জানান, গত ২ জানুয়ারি তিনি কলমটি তৈরির কাজ শুরু করেন। পার্শ্ববর্তী লালপুর বাজার থেকে ২৮ হাজার টাকায় ২৫ ফুট দৈর্ঘ্যে একটি সেগুন গাছ কেনেন তিনি। গাছটি বাড়িতে এনে ছাদের ওপর রেখে শুকিয়ে দুই ভাগে কাটেন। এরপর ২৫ ফুট দৈর্ঘ্য ও আধা ইঞ্চি প্রস্থের স্টিলের পাইপ স্থাপন করে গাছটি আঠা দিয়ে যুক্ত করেন। কলমটির জন্য ১৫ ইঞ্চি দৈর্ঘ্যের নিপ বানাতে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা শহরের একটি ওয়ার্কশপে সাতবার চেষ্টা করে অষ্টম বারের চেষ্টায় সফল হন হায়দার। গত ১৩ ফেব্রুয়ারি তিনি কলম তৈরির কাজ শেষ করেন।

হায়দার বলেন, ১৫ দিন আরবি হরফে লেখার চর্চা করার পর কলমের গায়ে আল্লাহর পবিত্র ৯৯টি নাম ও পবিত্র কোরআন শরীফের ১১৪টি সুরার নাম এবং দুটি সুরার চারটি আয়াত আরবি হরফে লিখে খোদাই কাজে সফল হয়েছি। তিনি আরো বলেন, এটিকে বিশ্বের সবচেয়ে বৃহৎ বল পয়েন্ট কলম হিসেবে স্বীকৃতি পেতে গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে আবেদন করেছি। গিনেস বুক কর্তৃপক্ষ তার আবেদনটি গ্রহণ করে স্বীকৃতি দেয়ার জন্য ৬১টি শর্ত দিয়েছে। সবগুলো শর্তই পূরণ করতে পেরেছেন বলে দাবি হায়দার বলেন, গিনেস বুক কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করে জানতে পেরেছি যে, ২০১১ সালে ভারতের হায়দরাবাদের আচার্য মুকুনুরি শ্রীনিবাস নামে এক ব্যক্তি ৩৭ দশমিক ২৩ কেজি ওজনের সাড়ে পাঁচ মিটার (১৮ দশমিক ৫৩ ফুট) দৈর্ঘ্যের একটি বল পয়েন্ট কলম তৈরি করেছিলেন।

হায়দার তার বানানো কলমটিকে বিশ্বের সর্বৃহৎ কলম হিসেবে স্বীকৃতি দিতে আবেদন জানিয়ে গত ১৫ ফেব্রুয়ারি গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে ই-মেইল করেন। তার ই-মেইলের উত্তরে গিনেস বুক কর্তৃপক্ষ ১২ সপ্তাহের মধ্যে হায়দারের সঙ্গে যোগাযোগ করবে বলে জানিয়েছে।

এদিকে হায়দারের বানানো কলম দেখতে প্রতিদিনই এলাকার ও আশপাশের মানুষ তার বাড়িতে ভীড় করছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved © 2019-2023 usbangladesh24.com