1. tasermahmud@gmail.com : admi2017 :
  2. akazadjm@gmail.com : Taser Khan : Taser Khan
বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ০৪:১৬ অপরাহ্ন

কিয়ারার আঘাতে লণ্ডভণ্ড ব্রিটেন

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ১০ ফেব্রুয়ারী, ২০২০

আবহাওয়া অফিসের সম্ভাব্য দিনের এক দিন পর ব্রিটেনে আঘাত হেনেছে কিয়ারা ঝড়। গতকাল ব্রিটেনের বিভিন্ন স্থানে কিয়ারার আঘাতে বিপর্যস্ত হয়েছে যাতায়াত ও যোগাযোগ বিঘ্নিত হয়েছে জনজীবন। ঝড়ে বাতাসের গতিবেগ ছিল ঘণ্টায় ৯০ মাইলের বেশি। কিয়ারার প্রভাবে বিভিন্ন স্থানে প্রবল বৃষ্টিতে বন্যা পরিস্থিতি তৈরী হয়েছে। বিভিন্ন স্থানে ঝড়ে গাছ উপড়ে গেলে রাস্তা বন্ধ হয়ে যায়। এছাড়া বিদ্যুতের খুঁটি ভেঙ্গে পড়লে কোনো কোনো স্থানে বিদ্যুতের সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যোগাযোগ ব্যবস্থা বিপন্ন হয়ে পড়ে।

ঝড়ের কারণে সড়ক, রেল, সাগরপথ এবং আকাশপথেও ভ্রমণ ব্যাহত হচ্ছে। অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক বহু ফ্লাইট বাতিল হয়েছে। কয়েকটি রেল প্রতিষ্ঠান যাত্রীদের এ সময় ভ্রমণ না করার আহ্বান জানিয়েছে। আর ভ্রমণ করলেও সংশ্লিষ্ট স্থানের রেলের যোগাযোগ ঠিক আছে কিনা আগে থেকে জেনে যাওয়ার পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

রাজধানী লন্ডনসহ ব্রিটেনের অধিকাংশ স্থানে প্রবল বৃষ্টিপাত হচ্ছে। গতকাল রোববার ছিল নরফোকের সানড্রিংহামের চার্চে রানীর নির্ধারিত প্রার্থনা করার কথা। চার্চে রানীর আগমন মানেই ওই এলাকায় প্রচুর জনসমাগম। জন নিরাপত্তার স্বার্থে আবহাওয়ার কারণে রানীর সফর বাতিল করা হয়েছে। রানীর বাড়ির পাশে হাইড পার্ক ও রিজেন্ট পার্কসহ লন্ডনের আটটি পার্ক রোববার বন্ধ রাখা হয় প্রতিকূল আবজাওয়ার কারনে। এছাড়া আবহাওয়ার কারণে আরো যেসব কর্মসূচী স্থগিত বা বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে তাদের মধ্যে রয়েছে ইংল্যান্ড ও স্কটল্যান্ডের মধ্যে অনুষ্ঠিতব্য নারীদের ছয় জাতির ফুটবল। গতকাল লন্ডনে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল ২৫ হাজার মানুষের অংশগ্রহণে ১০ কিলোমিটার উইন্টার রান, সেটাও বাতিল করা হয়েছে আবহাওয়ার কারণে। এছাড়া নারীদের ফুটবলের সুপার লীগের চারটি ম্যাচ বাতিল করা হয়েছে, সেগুলো প্রায় ২০ হাজার দর্শক উপভোগ করার কথা ছিল।

ব্রিটেনজুড়ে ২৫০টিরও বেশি স্থানে বন্যা সতর্কতা জারি করা হয়েছে। গুরুতর বন্যা সতর্কতা অর্থাৎ,জীবনের ঝুঁকি রয়েছে,এমন সতর্কতা জারি রয়েছে নর্থ ইয়র্কশায়ার এবং পাটেলে ব্রিজে।

ইংল্যান্ডে ২ শ’ টির বেশি স্থানে স্কটল্যান্ডের ৬০ টি স্থান এবং ওয়েলসের ১৭টি স্থানে বন্যার আশঙ্কা করা হচ্ছে। কনওয়ের একটি স্থানে ৪ ফুট উচ্চতার বন্যার পানিতে ভ্যানে আটকা পড়েছেন কয়েকজন। সেখানে কোমর পর্যন্ত পানি জমে আছে।

ব্রিটেনজুড়ে ১ লাখ ৩৭ হাজারেরও বেশি মানুষ গতরাত থেকেই বিদ্যুৎবিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে।দেশটির বেশকিছু অঞ্চল প্রচ- ঝড়ো হাওয়ার কবলে পড়তে পারে বলে সতর্ক করেছে আওহাওয়া অফিস।
ইংল্যান্ডে এবং ওয়েলসে রোববার ঝড়ো হাওয়ার সতর্কতা জারি করা হয় বলে জানিয়েছে বিবিসি।বিভিন্ন জায়গার সঙ্গে ওয়েলসের রেল যোগাযোগও এদিন বন্ধ করে দেয়া হয়। ওয়েলস এর আগে কখনো এমন শক্তিশালী ঝড়ের কবলে পড়েনি।

আওহাওয়া অফিসের এক কর্মকর্তা বলেছেন,“দেশজুড়ে সতর্কতা জারি থাকার এমন ঘটনা সচরাচর দেখা যায় না।ঝড় কায়রা কতটা ব্যাপক প্রভাব ফেলতে পারে এ থেকেই তা অনুমেয়।”
সোমবার ঝড়টি সরে যাওয়ার পরও এর দমকা বাতাসের প্রভাবে লন্ডভন্ড হতে পারে নর্দার্ন আয়ারল্যান্ড এবং স্কটল্যান্ডের বেশিরভাগ এলাকা। আবহাওয়া অফিস সোমবার এই দুই জায়গাসহ নর্থ ইংল্যান্ডের কয়েকটি স্থানে প্রবল বাতাস এবং তুষারপাতের আশংকায় মঙ্গল ও বুধবার পর্যন্ত ইয়েলো সতর্কতা জারি করেছে। নর্থ-ওয়েস্ট ইংল্যান্ডও তুষারে ঢাকা পড়ার আশঙ্কা আছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved © 2019-2023 usbangladesh24.com