1. tasermahmud@gmail.com : admi2017 :
  2. akazadjm@gmail.com : Taser Khan : Taser Khan
মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪, ০৭:৪৮ অপরাহ্ন

মেয়েকে বাঁচান, হুবেইয়ে আর্তি মায়ের

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২০

কনকনে ঠান্ডায় মাঝরাস্তায় দাঁড়িয়ে কাঁপছিলেন ২৬ বছরের হু পিং। তাঁর গায়ে কম্বল জড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টা করছেন তাঁর মা লু উয়েজিন। অঝোরে কাঁদছেন বছর পঞ্চাশের মহিলা। মা-মেয়েকে সেতু পেরোনোর অনুমতি দিচ্ছেন না নিরাপত্তারক্ষীরা। হুয়ের লিউকেমিয়ার চিকিৎসার জন্য ওই সেতু পেরিয়ে অন্য প্রদেশে যাওয়া জরুরি।

নোভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত চীনের হুবেই প্রদেশের এখন অন্য রোগের চিকিৎসা করানোও অসম্ভব হয়ে দাঁড়িয়েছে। তালাবন্দি এই প্রদেশ থেকে অন্যত্র যাওয়া বন্ধ। বাইরের কেউ হুবেইয়ে ঢুকতে পারছেন না। ফলে ক্যান্সারের মতো আর এক মারণ রোগে যাঁরা ভুগছেন, তাদের চিকিৎসাও অনিশ্চয়তায়।

ইয়াংজ়ে নদীর সেতু পেরিয়ে জিয়াংশি প্রদেশের জিউজিয়াং শহরের এক হাসপাতালে হুয়ের দ্বিতীয় পর্যায়ের কেমোথেরাপি শুরু হওয়ার কথা ছিল। রোববার সকালে সেতুর চেকপয়েন্টে তাদের আটকে দেন নিরাপত্তারক্ষীরা। লু আর্জি জানান, তাঁকে না যেতে দিলেও হু-কে যেন হুবেই ছাড়ার অনুমতি দেওয়া হয়। শুধু বলতে থাকেন, ‘মেয়েটা বাঁচুক।’’ শেষে অ্যাম্বুল্যান্সের ব্যবস্থা হয় হু-এর জন্য। থার্মাল পরীক্ষার পরে হু ও তার মায়ের হুবেই ছাড়ার অনুমতি মেলে।

হুবেইয়ের এই টুকরো ছবিটা চিনের অন্য শহরেও দেখা যাচ্ছে। কারণ চীনের সরকারই রোববার জানিয়েছে, এই ভাইরাসের সংক্রমণ আটকাতে আরো কড়া ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। যারা আক্রান্ত, তাদের আলাদা করে রাখা হচ্ছে। চিহ্নিত করা হচ্ছে সংক্রমিত এলাকাগুলো। যেখানে সংক্রমণের ভয় বেশি, সেখানকার মানুষের যাতায়াতের ক্ষেত্রেও নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। উহানে তড়িঘড়ি তৈরি করা হচ্ছে কয়েক হাজার শয্যার এক নতুন হাসপাতালও। ঝেজিয়াং প্রদেশে নিয়ম করা হয়েছে, ৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত বাড়ির যেকোনো এক জন বাজার করতে বেরোতে পারবেন, তা-ও দিনে এক বার।

চীনের সরকারি পরিসংখ্যান অনুযায়ী, এখন পর্যন্ত এই ভাইরাসের আক্রমণে মৃত্যু হয়েছে ৩০৪ জনের। আক্রান্ত ১৪ হাজারের বেশি। চীনের বাইরে এই প্রথম মৃত্যুর খবর এসেছে ফিলিপাইন থেকে। বছর চুয়াল্লিশের এক ব্যক্তির রোববার মৃত্যু হয়েছে।

চীনে আটক পাকিস্তানিদের দেশে ফিরতে না দিলেও রোববার ইসলামাবাদের তরফে জানানো হয়েছে, তারা কয়েক জন পাকিস্তানি নার্স ও চিকিৎসক পাঠাচ্ছে উহানে। পাকিস্তানে ভাইরাসে আক্রান্তদের চিকিৎসার বন্দোবস্ত নেই বলেই আপাতত দেশের নাগরিকদের ফেরানো হচ্ছে না বলে জানিয়েছে পাক সরকার। অন্য দিকে, চীন থেকে বিশ্বের অন্যত্র ছুটি কাটাতে যাওয়া নাগরিকদের বিশেষ বিমানের সাহায্যে ফেরার ব্যবস্থা করেছে বেইজিং।

সূত্র : সংবাদ সংস্থা

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved © 2019-2023 usbangladesh24.com